স্বাস্থ্যসেবায় ভারত ও পাকিস্থানের চেয়ে অনেক ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ - TRUE NEWS

এইমাত্র পাওয়া

TRUE NEWS

TRueNews.Liveসত্য প্রকাশে সদা জাগ্রত

test banner

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Post Top Ad

Responsive Ads Here

Monday, August 27, 2018

স্বাস্থ্যসেবায় ভারত ও পাকিস্থানের চেয়ে অনেক ধাপ এগিয়ে বাংলাদেশ

সারাবিশ্বের স্বাস্থ্যব্যবস্থার উপর WHO এর করা সর্বশেষ জরিপ, যেখানে বাংলাদেশের অবস্থান ৮৮ তম এবং ইন্ডিয়ার অবস্থান ১১২ তম।
এখানে ডাক্তার হিসেবে নিজেদের জাহির করার জন্য এই স্ট্যাটটা আপনাদের সাথে শেয়ার করি নাই,

আপনাদের ভাই টাকা অাছে, ব্যাক্তিগত একটা পছন্দ আছে আপনি শুধু ইন্ডিয়া নয় সিংগাপুর, অামেরিকা অথবা বিলেত গিয়েও চিকিৎসা করাতে পারেন বিশ্বাস করেন এতে বাংলাদেশের ডাক্তারদের বিন্দুমাত্র মাথাব্যাথা বা খারাপ লাগার কারণ নাই।

কিন্তু সমস্যা হলো কটাক্ষ করে কথা বলা।  বাংলাদেশের ডাক্তাররা সময় দেয় না, রোগ ধরতে পারে না, চিকিৎসা দিতে পারে না, হাজার হাজার টাকার টেষ্ট দেয় আর দুই তিনটা ঔষধ দিয়ে ছেড়ে দেয়, ঠিকমত কথাও বলে না ইত্যাদি ইত্যাদি।

***** একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তার প্রত্যেকদিন বিকেলে ৩-৪ ঘন্টা চেম্বারে সঠিকভাবে সময় দিয়ে সর্বোচ্চ কতজন রোগী দেখতে পারেন..??? সর্বোচ্চ ৩০-৩৫ জন..
কিন্তু যখন আপনার সামান্য জ্বর সর্দিকাশি, পেটে ব্যাথার জন্যও ঢাকা শহরের বা আপনার শহরের বিজ্ঞ প্রফেসরকে দরকার তখন সারা বাংলাদেশ থেকে প্রতিদন আপনার মত কতশত রোগী আসছে স্যারদের চেম্বারে। এখন আপনিই হিসেবটা কষে ফেলুন প্রতিটি রোগী কতটুকু সময় ভাগে পায়।
*** আপনারা তো ওই হিসেব না করে চেম্বারের সামনে বসে বসে হিসেব কষেন কতজন রোগী দেখলো ভিজিট কত নিলো কি কি টেষ্ট দিলো আর কতটাকা কমিশন পাইলো।
 আর স্যাররা না দেখেও তো উপায় কি তখন তো আরো বিপদ এতদুর থেকে আসছেন একটু দেখলও না।
আরো অনেক সমস্যা আছে যেগুলো লিখতে গেলে সারাদিন পার হয়ে যাবে কিন্তু লিখা শেষ হবে না।

পরিশেষে এতটুকুই বলব যে বাংলাদেশের ডাক্তাররা যদি চিকিৎসা দিতে নাই জানতো তাহলে প্রতিদিন হাজার হাজার রোগী সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরতো না।

তাই ফার্মেসীওলা, কোয়াক, ভন্ড কবিরাজদের মত বিজ্ঞ চিকিৎসকদের কাছ থেকে দুরে থাকুন, অপ্রয়োজনীয় ঔষধ সেবন থেকে বিরত থাকুন,
যে কোন সমস্যায় আপনার এলাকার যে কোন অনঅভিজ্ঞ এমবিবিএস ডাক্তারের উপর বিশ্বাস রাখুন, তার কাছ থেকে পরামর্শ নিন এবং সুস্থ থাকুন।
প্রয়োজন পড়লে ওই অনঅভিজ্ঞ এমবিবিএস ডাক্তার আপনাকে সঠিক পরামর্শ দিয়ে বিজ্ঞ প্রফেসরের কাছে পাঠিয়ে দিবে তখন ওই বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরও অাপনাকে চিকিৎসা দেওয়াটা সহজ হবে আপনি ভালো থাকবেন।

***কোন ডাক্তারই চায় না তার চিকিৎসায় তার একজন রোগী খারাপ হোক বা রোগী মারা যাক। তাই যে ডাক্তারের কাছেই যান কেন তার উপর অাস্থা রাখুন সুস্থ করার মালিক অাল্লাহ্।

সংগৃহিত

No comments:

Post a Comment

Thanks

Post Top Ad

Responsive Ads Here